মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
জেলা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো

দেশকে নিরক্ষরমুক্ত করার লক্ষ্যে প্রথমত: শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে সম্প্রসারিত করে আলাদাভাবে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিভাগ গঠন করা হয়। এই বিভাগের অধীনে ১৯৯২ সনে সমন্বিত উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা বিস্তার কার্যক্রম(ইনফেপ) নামে একটি বৃহৎ প্রকল্প গঠন করা হয়। এ প্রকল্পের অভাবনীয় সাফল্যের ধারাবাহিকতায় ১৯৯৫ সালে ইনফেপ-কে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা অধিদপ্তরে রূপান্তর করা হয় এবং প্রতিটি জেলা পর্যায়ের কালেক্টরেট ভবনে জেলা কো-অর্ডিনেটরের কার্যালয় স্থাপন করা হয়। ২০০৩ সনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিভাগের নাম পরিবর্তন করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় নামকরণ করা হয়। ২০০৫ সনের ১৭ এপ্রিল এ উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা অধিদপ্তরের স্থলে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো গঠন করা হয় এবং জেলা পর্যায়ে জেলা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর সহকারী পরিচালকের কার্যালয় নামে অভিহিত করা হয়। উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কর্মসূচী বাস্তবায়নের জন্য সরকার ২০০৬ সালে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষানীতি প্রণয়ন করেছে।

বর্তমানে জেলা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর কার্যালয় কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের মূল ভবনের দক্ষিন পার্শ্বে অবস্থিত টীনশেড বিল্ডীং এ (বিআরটিএ সংলগ্ন)।

  • কী সেবা কীভাবে পাবেন
  • প্রদেয় সেবাসমুহের তালিকা
  • সিটিজেন চার্টার
  • সাধারণ তথ্য
  • সাংগঠনিক কাঠামো
  • কর্মকর্তাবৃন্দ
  • তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • বিজ্ঞপ্তি
  • ডাউনলোড
  • আইন ও সার্কুলার
  • ফটোগ্যালারি
  • প্রকল্পসমূহ
  • যোগাযোগ

 

০১।      উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো (বিএনএফই) সাথে সংশি­ষ্ট বেসরকারী সংস্থার (এনজিও) উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কর্মসূচীর মাঠ পর্যায়ের কার্যক্রমের সার্বিক তদারকী;

০২।      প্রতি মাসে উপজেলা পর্যায়ে বাস্তবায়নাধীন বিভিন্ন সংস্থার কমপক্ষে ৩০টি উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করা, শিক্ষার্থীদের পাঠের অগ্রগতি যাচাই করা এবং ক্রটি-বিচ্যুতি পরিলক্ষিত হলে সংশোধনের ব্যবস্থা গ্রহণ কর ;

০৩।     উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো আওতাধীন বিভিন্ন প্রকল্পের জেলা পর্যায়ে বিভাগীয় শহরে নিয়োজিত কর্মকর্তার কর্মস্থল ত্যাগ, নৈমিত্তিক ছুটি অনুমোদন এবং আয়ন-ব্যয়ন কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন;

০৪।      জেলা জাতীয় পর্যায়ের বিভিন্ন শিক্ষামূলক অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ;

০৫।      সামাজিক উদ্বুদ্ধকরণের (Social Mobilization) মাধ্যমে গণশিক্ষা কার্যক্রম সম্পর্কে গণসচেতনতা সৃষ্টির পদক্ষেপ গ্রহণ;

০৬।     উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কর্মসূচীর কেন্দ্রসমূহের সুপারভাইজার, শিক্ষক কেন্দ্র ভিত্তিক শিক্ষার্থীদের তালিকা সংগ্রহ, সংরক্ষণ এবং সেগুলো প্রধান কার্যালয়ের এমআইএস শাখায় প্রেরণ ;

০৭।      সরকারের বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পরিবেশ উন্নয়নের ক্ষেত্রে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা সাথে সংশি­ষ্টদের কে অংশগ্রহণে উৎসাহিতকরণ;

০৮।     জেলা পর্যায়ের কর্মচারীদের বেতন-ভাতা আনুষাঙ্গিক খরচের আয়ন-ব্যয়ন কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন এবং মাসিক খরচের হিসাব বিবরণী নিয়মিত সদর দপ্তরে প্রেরণ ;

০৯।     জেলা পর্যায়ের বাজেট প্রণয়ন সদর দপ্তরে প্রেরণ ;

১০।      জেলা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা টেন্ডার কমিটির সভায় সদস্য-সচিব হিসাবে দায়িত্ব পালন ;

১১।      জেলা পর্যায়ে প্রতি মাসে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কমিটির সভা আয়োজন, সদস্য-সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন এবং মাসিক সভার প্রতিবেদন সদর দপ্তরে প্রেরণ ;

১২।      এনজিও কর্তৃক বাস্তবায়িত কর্মসূচীর বিপরীতে দাখিলকৃত হিসাব বিবরণী (SOE) মাঠ পর্যায়ে যাচাই করে স্বাক্ষর/প্রতিস্বাক্ষর পূর্বক সংশি­ষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ ;

১৩।     উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কর্মসূচী বাস্তবায়নের নিমিত্তে জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন জেলার অন্যান্য বিভাগের সাথে যোগাযোগ রক্ষ ;

১৪।      প্রধান কার্যালয় থেকে প্রদত্ত উপানুষ্ঠানিক শিক্ষার সাথে সম্পৃক্ত যে কোন দায়িত্ব সম্পাদন ;

১৫।      এছাড়া প্রধান কার্যালয় জেলা প্রশাসন কর্তৃক সময়ে সময়ে অর্পিত অন্যান্য কার্যাবলী সম্পাদন

 

ছবি নাম মোবাইল

ছবি নাম মোবাইল

ছবি নাম মোবাইল

0

।জেলা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো কুমিল্লা